রবিবার ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
◈ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বপ্নচারী কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত ◈ পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে ৭০ জন ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের হাতে বাড়ির চাবি ও দলিল হস্তান্তর ◈ তানোর উপজেলা কৃষকলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত ◈ বরগুনায় বিস্ফোরণে নিহত ১,আহত শতাধিক ◈ কেশরহাট পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড ফুলশোতে নৌকা প্রতিকের নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত ◈ কেশরহাট পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে নৌকা প্রতিকের মেয়র প্রার্থী শহীদের নির্বাচনী ওঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত ◈ রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ভূমিহীন ও গৃহহীন ২৮০টি পরিবারকে জমিসহ বাড়ি প্রদান করা হয়েছে! ◈ রাজশাহী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির গনশুনণী ও উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত ◈ নওগাঁয় পিসরেটের অস্থায়ী কর্মচারীদের চাকুরী স্থায়ী করণের দাবিতে কর্ম বিরতী ও স্মারকলিপি প্রদান ◈ কেশরহাটে নৌকার পক্ষে নির্বাচনী কর্মিসভা

এবার মোহনপুরে কৃষকরা রসুন চাষে উদ্দ্যোগী

প্রকাশিত : ০৪:৩০ অপরাহ্ণ, ৫ জানুয়ারি ২০২১ মঙ্গলবার ৫৮ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, নিজস্ব প্রতিবেদক :

মোহনপুরে বাহারী ফসলের ফাঁকে বেড়েছে রসুন চাষ। বিগত বছরগুলোতে এখানকার কৃষকরা রসুন চাষে আগ্রহী ছিল না। তবে এবার আগের তুলনায় অধিক পরিমাণ জমিতে রসুন চাষ করেছে। বিনা চাষে রসুন চাষ পদ্ধতির কারণে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন কৃষক সমাজ। রোপন মৌসুমে রসুন বীজের দাম কিছুটা বেশি থাকলেও চাষ উৎপাদন মৌসুমে দাম কম হওয়ার আশঙ্কা করছেন কৃষকরা। উপজেলা কৃষি বিভাগের হিসাব মতে, গত বছর রসুন চাষের পরিমাণ ছিল প্রায় ১৫০হেক্টর। চলতি মৌসুমে রসুন চাষের পরিমাণ ধরা হয়েছে প্রায় ১৮০ হেক্টর জমি। সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, মোহনপুর উপজেলার অধিকাংশ নিচু ও নিচু মানের জমিতে রসুন চাষ করা হয়েছে। এসবের মধ্যে কাদায় বেশি রসুন করা হয়েছে। কাদায় চাষকৃত জমিতে আগাম রসুন চাষের কারণে গাছ কিছুটা বড় হলে শুকনা জমিতে চাষকৃত রসুনগাছ বেড়েছে কম। উপজেলার মগরাবিলে কাদায় সর্বাধিক রসুন চাষ করা হয়েছে। প্রথম ও দ্বিতীয় দফার পরিচর্যাসহ সেচকাজ শেষ করেছে কৃষকরা। এখন চলছে কীটনাশক প্রয়োগ। বাজারে সামান্য পরিমাণ নতুন রসুন উঠতে শুরু হলেও মাঘ মাসের শেষ নাগাদ পুরো দমে রসুন উঠবে বলে জানিয়েছে খুচরা ব্যবসায়িরা।

উপজেলার কেশরহাট পৌরসভা এলাকার হরিদাগাছি গ্রামের কৃষক মনসুর রহমান জানিয়েছেন, তিনি প্রায় এক বিঘা জমিতে কাদায় রসুন চাষ করেছেন। এখন পর্যন্ত রসুন ক্ষেতভাল থাকলেও উঠার সময় দাম কম যেতে পারে বলে মনে করেন তিনি। শফিকুল ইসলাম নামের অপর একজন কৃষক বলেন, আমি ১০ কাঠাজমিতে কৃষি বিভাগের পরামর্শ অনুযায়ি রসুন চাষ করেছি। সামান্য কিছু প্রণোদনা পেয়েছি যা রসুন ক্ষেতে ব্যবহার করেছি। রসুন গাছ এখন পর্যন্ত ভাল আছে। ফলন ভাল হবে বলে আশা করি। দাম ভাল হলে লাভ হবে আর দাম কম হলে লোকসান হবে বলেও জানান তিনি।
অন্যদিকে মোল্লাডাঙ্গি গ্রামের সুলতান আলী বলেন, কাদায় রসুন চাষ করেছি। এই পদ্ধতিতে রসুন চাষে খরচ অনেকটায় কম হয়। ফলনও হয় বেশি। আমার ক্ষেতের রসুন গাছ এখন পর্যন্ত ভাল আছে। সেচসহ সার-কীটনাশ প্রয়োগ করছি। আশা করি রসুনের ফলন ভাল হবে। তবে বাজারে এখন পর্যন্ত পুরতন রসুনের আমদানী বেশি থাকায় উঠতি মৌসুমে দাম কম যাবে বলে ধারনা করেন তিনি। এজন্য কৃষকদের লোকসান গুণতে হবে।
উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রহিমা খাতুন বলেন, মোহনপুরে চাষকৃত রসুনের অবস্থা এখন পর্যন্ত ভাল আছে। কোনো মাঠে রসুন ক্ষেতে রোগবালায়ের আক্রমণ দেখা যায়নি। এজন্য ভাল ফলন হবে বলে ধারনা করেন তিনি।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক সত্যের সন্ধান'কে জানাতে ই-মেইল করুন- sattersandhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক সত্যের সন্ধান'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক সত্যের সন্ধান | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT