শনিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
◈ কেশরহাটে নৌকার প্রচার মিছিল ছাত্রলীগের : জামাত-বিএনপিকে হুশিয়ারী ! ◈ রাত পোহালেই কাকানহাট পৌরসভার ভোটযুদ্ধ, লড়াই হবে ইভিএমে ◈ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত ◈ সাংবাদিক হিলালীর মৃত্যুতে রাজশাহী প্রেসক্লাবের শোক ◈ চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে কম্বল বিতরণ করলেন বেটার চাঁপাইনবাবগঞ্জ (বিসি) ◈ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার মাঝি হলেন সৈয়দ মনিরুল ইসলাম ◈ আদিবাসী জনগোষ্ঠী আর পিছিয়ে পড়া নয় ◈ রাজশাহী তানোর পৌরসভা নির্বাচনে আবারও নৌকার প্রার্থী ইমরুল ◈ বাগমারা উপজেলায় তাহেরপুর পৌরসভায় আবার ও নৌকার মাঝি হলেন অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ ◈ কৌশলে এগিয়ে বিএনপি আড়ানী পৌর নির্বাচনে!

নওগাঁয় ১৩ হেক্টর জমিতে কপি চাষ : ভালো দাম পাওয়ায় চাষীরা খুশি

প্রকাশিত : ০৯:৫১ অপরাহ্ণ, ১১ ডিসেম্বর ২০২০ শুক্রবার ৭৯ বার পঠিত

ডা.আব্দুল্লাহ আল ওয়াদুদ, মহাদেবপুর প্রতিনিধি:

ডা.আব্দুল্লাহ আল ওয়াদুদ মহাদেবপুর প্রতিনিধি :-

শস্যভান্ডার হিসাবে খ্যাত নওগাঁয় এবার ১৩হাজার হেক্টর জমিতে কপি চাষ করা হয়েছে। প্রথমে দাম ভালো পাওয়ায় চাষীরা খুব খুশি। যারা আগাম চাষ করতে পেরেছিল তারা আগাম কপি বিক্রি করে তাদের খরচের টাকা তুলে নিয়েছে। এখন যা আছে তা দিয়ে লাভের আশা করছেন তাঁরা।
আগাম ওই কপি ৬০/-টাকা থেকে ৫০/- টাকা দরে প্রতি পিচ বিক্রি করেছেন। তবে এখন দাম প্রায় প্রকার ভেদে অর্ধেকে নেমে এসেছে। একাধিক কৃষক ও কপি ব্যাপারী জানান, স্থানীয় বাজারগুলোতে এখন যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে। ইতিমধ্যে নওগাঁর কপি ঢাকার বাজারগুলো দখল কওে নিয়েছে। প্রতিদিন সকাল বিকাল নওগাঁ সদর উপজেলার ডাক্তারের মোড় হাপানিয়া বাজার এলাকা থেকে ৪/৫ ট্রাক বোঝাই করে কপি রাজধানীতে যাচ্ছে।
নওগাঁ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক শামসুল ওয়াদুদ জানান, ফুল কপি উঁচু জমিতে চাষ হয়। ফলে এবার নওগাঁ জেলায় বন্যাতে কপি চাষের উপর কোনো প্রভাব পরেনি। তাই কৃষকরা সময় মতো কপি চাষ করতে পেরেছন। নওগাঁ জেলায় এবার মোট ১৩হাজার হেক্টর জমিতে কপি চাষ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬শ হেক্টর জমিতে ফুলকপি ও ৭’শ হেক্টর জমিতে পাতাকপি চাষ হয়েছে। প্রতি হেক্টর জমিতে ২২ থেকে ২৪ মেট্রিক টন কপি উৎপাদন হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। নওগাঁ জেলা সদর উপজেলার বর্ষইল ও পতœীতলা, বদলগাছী, মহাদেবপুর ও মান্দা উপজেলায় কপি চাষ করে থাকেন কৃষক। চকজাফরাবাদ গ্রামের কৃষক বাবুল সরদার (৫৬) বরিবার সকালে জানান, তিনি দেড় বিঘা জমিতে ১৫ হাজার টাকা খরচ করে কপি চাষ করেছেন। ইতোমধ্যে ১০ কাঠা জমির কপি বর্তমান বাজারে বিক্রি করেছেন প্রতি পিচ ২০/- টাকা দরে (২০০০/- টাকা শ’)।
প্রায় ১৪ দিন আগে বিক্রি করেছেন প্রতি পিচ ৪০/- থেকে ৪৫/- টাকা দরে। এতে তার দের বিঘা জমির মধ্যে ১০ কাঠা জমির কপি বিক্রি করে দের বিঘা কপি চাষের খরচের ১৫ হাজার টাকা উঠিয়েছেন তিনি। বাকি ১ বিঘা জমির কপি বিক্রি করবেন এখন যে বাজার দর থাকবে সেই দরে। তাতেও তাঁর লাভ হবে আশা প্রকাশ করেছেন এ কৃষক। আতিথা গ্রামের কপি চাষী মোঃ আসলাম হোসেন ১১ কাঠা জমিতে ১০ হাজার টাকা খরচ করে কপি চাষ করেছেন। ইতিমধ্যে বিক্রি করেছেন ৮ হাজার টাকার কপি। আরো ৮ হাজার টাকা বিক্রি হবে বলে তার আশা।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক সত্যের সন্ধান'কে জানাতে ই-মেইল করুন- sattersandhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক সত্যের সন্ধান'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক সত্যের সন্ধান | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT