বৃহস্পতিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
◈ রাজশাহীতে আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ শেষে সার্টিফিকেট প্রদান ◈ নওগাঁর পত্নীতলায় অবশেষে অমানুষিক নির্যাতনকারী বড় ভাই সামসুজ্জোহা গ্রেপ্তার ◈ গোদাগাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত ◈ চাঁপাইনবাবগঞ্জে দ্বিতীয়বার বিয়ে করে স্ত্রী-সন্তানকে অস্বীকার, অসহায় মা-মেয়ের মানবেতর জীবন-যাপন ◈ কুড়িগ্রামের উলিপুরে এক মাদকসেবীর ৬ মাসের দন্ড ◈ কুড়িগ্রামে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির বাস্তবায়ন শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত ◈ নওগাঁয় ২০ হাজার ৯শ ৬০ হেক্টর জমিতে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন ◈ মহাদেবপুরে ক্রিকেট খেলার উদ্বোধন ◈ মোহনপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত ◈ ধামরাই পৌর নির্বাচনে ৩ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল

সাইনোসাইটিস রোগ প্রতিরোধ ও প্রতিকার সম্পর্কে বললেন, ডা. সাইফুল আলম

প্রকাশিত : ০৪:০৩ অপরাহ্ণ, ২৫ অক্টোবর ২০২০ রবিবার ৮৮ বার পঠিত

দৈনিক সত্যের সন্ধান নিউজ ডেক্স, :

রাকিব হাসান, মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

সাইনোসাইটিস অতি পরিচিত একটি রোগ।আমাদের নাকের চারপাশের অস্থিগুলোর পাশে বাতাসপূর্ণ কুঠরি থাকে।এদের সাইনাস বলে। সাইনাসের কাজ হলো মাথাকে হালকা রাখা, মাথাকে আঘাত থেকে রক্ষা করা, কণ্ঠস্বরকে সুরেলা রাখা, দাঁত ও চোয়াল গঠনে সহায়তা করা। যদি কোনো কারণে এ সাইনাসগুলোয় প্রদাহ সৃষ্টি হয়, তখন তাকে সাইনোসাইটিস বলে। সাইনোসাইটিস ব্যাকটেরিয়া-জনিত ইনফেকশন, অ্যালার্জি অথবা অটোইমিউন ডিজিজ ইত্যাদি কারণে হয়ে থাকে।এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে সারা বিশ্বের প্রতি ১০০ জনের ৫ থেকে ১০ শতাংশ এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।ঠাণ্ডার দেশে এই রোগে আক্রান্তদের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পায়।এর
উপসর্গ গুলো হলো,
মাথাব্যথা, মাথা ভার ভার লাগা ও মাথা বদ্ধভাব, নাক বন্ধ, নাক ভারী হয়ে থাকা, নাক দিয়ে অবিরাম বা ঘন ঘন পানি পড়া, নাকে গন্ধ না পাওয়া, মাঝে মাঝে বেশ জ্বর ওঠা বা সবসময় হালকা হালকা জ্বর ভাব থাকা, সবসময় শারীরিক দুর্বলতা, নাক ডাকা ও ঘুমের মধ্যে শ্বাসকষ্ট বা দম বন্ধ হয়ে আসা বা স্লিপ এপনিয়া সিনড্রোম এগুলো সাধারণ উপসর্গগুলোর মধ্যে অন্যতম।

চিকিৎসা
সাইনুসাইটিসের সমস্যায় ভুগলে গরম পানির ভাপ নিতে পারেন। এতে করে কিছুটা আরাম পাবেন, নাকের বন্ধভাবটাও কাটবে বেশ। এ ছাড়া নাক পরিষ্কার করতে হবে খুব ভালোভাবে। নাকের ভেতর কোনো কেমিক্যাল যেমন- বেনজিন, মেন্থলজাতীয় পদার্থ ব্যবহার করা যাবে না।জ্বর থাকলে প্যারাসিটামল এবং চিকিৎসকের পরামর্শে অ্যান্টিবায়োটিক এবং অ্যান্টিহিস্টামিন জাতীয় ওষুধ খেতে হতে পারেন।

প্রতিরোধ
যেহেতু অ্যালার্জি, ঠাণ্ডা এবং ইনফ্লুয়েঞ্জার মতো সমস্যাগুলো থেকে সাইনোসাইটিসের অবতরণ ঘটে, তাই এটা গুরুত্বপূর্ণ যে, সাইনোসাইটিসে আক্রান্ত হওয়ার আগেই এসব সমস্যার সমাধান করা। যদি আপনি ধূমপান করেন, তবে তা পরিত্যাগ করুন। বাড়িতে কার্পেট ব্যবহার করবেন না,ফোম দিয়ে তৈরি আসবাবপত্র ব্যবহার করবেন না। নাকে খুব জোরে যাতে আঘাত না লাগে সেদিকে লক্ষ্য রাখুন।ঘুমানোর সময় মাথা উঁচু রাখুন, যাতে সাইনাস নিজে থেকেই বেরিয়ে আসতে পারে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক সত্যের সন্ধান'কে জানাতে ই-মেইল করুন- sattersandhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক সত্যের সন্ধান'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক সত্যের সন্ধান | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT